একাদশ শ্রেণিতে ভর্তির আবেদন করার নিয়ম ২০২২

এসএসসি রেজাল্ট ২০২১ ইতিমধ্যে প্রকাশিত হয়েছে। এখন এসএসসিতে উত্তীর্ণ শিক্ষার্থীদের একাদশ শ্রেণিতে ভর্তির জন্য আবেদন করতে হবে। শিক্ষার্থীরা অনলাইনের মাধ্যমে অথবা এসএমএস এর মাধ্যমে একাদশ শ্রেণিতে ভর্তির আবেদন করতে পারবে। সম্প্রতি বাংলাদেশ শিক্ষা বোর্ড একাদশ শ্রেণিতে ভর্তির আবেদন করার তারিখ প্রকাশ করেছে।

এসএসসি পরীক্ষায় উত্তীর্ণ শিক্ষার্থীরা আগামী ০৮ জানুয়ারি ২০২২ থেকে একাদশ শ্রেণিতে ভর্তির আবেদন করতে পারবে। উক্ত আবেদন ১৫ জানুয়ারি ২০২২ পর্যন্ত চলমান থাকবে। একাদশ শ্রেণিতে ভর্তির আবেদন করার নিয়মাবলী জানতে আমাদের পেজে ভিজিট করুন। নিচে একাদশ শ্রেণিতে ভর্তির আবেদন ফরম পূরণ করার নিয়মাবলী বিস্তারিত আলোচনা করা হলো।

একাদশ শ্রেণিতে ভর্তি আবেদন  যোগ্যতা ২০২২

১. বাংলাদেশের যে কোন শিক্ষা বোর্ড থেকে অথবা বাংলাদেশ উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে ২০১৯ থেকে ২০২১ সালের মধ্যে উত্তীর্ণ সকল শিক্ষার্থীরা একাদশ শ্রেণিতে ভর্তির আবেদন করতে পারবে।

২. ন্যূনতম জিপিএ ১.০০ উত্তীর্ণ সকল প্রার্থীরা একাদশ শ্রেণিতে ভর্তির আবেদন করতে পারবে।

৩. বাংলাদেশের বাইরে অর্থাৎ বিদেশি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান থেকে উত্তীর্ণ শিক্ষার্থীরা বাংলাদেশ মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ড থেকে সনদের মান নির্ধারণ করে একাদশ শ্রেণিতে ভর্তির আবেদন করতে পারবে।

আবেদন শুরু তারিখ  : ০৮ ই জানুয়ারি, ২০২২ ইং

আবেদন শেষ তারিখ : ১৫ ই জানুয়ারী, ২০২২ ইং, রাত্রি ১১:৫৯ পর্যন্ত।

ভর্তির আবেদন ফি : ১৫০ টাকা মাত্র।

একাদশ শ্রেণিতে ভর্তির জন্য শিক্ষার্থীরা অনলাইনে অথবা টেলিটক সিমের মাধ্যমে আবেদন করতে পারবে। ২০২১-২০২২ শিক্ষাবর্ষে এসএসসি ভর্তি অর্থাৎ একাদশ শ্রেণীর ভর্তি প্রক্রিয়ার বিস্তারিত আলোচনা করা হলো।

অনলাইনে একাদশ শ্রেণীর ভর্তি আবেদন করার নিয়মাবলী ২০২২

একাদশ শ্রেণিতে অনলাইনে আবেদন করার জন্য শিক্ষার্থীকে বাংলাদেশ শিক্ষা বোর্ডের একাদশ শ্রেণিতে ভর্তির আবেদন করার ওয়েবসাইটে প্রবেশ করে অনলাইনে আবেদন সম্পন্ন করতে হবে। অনলাইনে আবেদন করার ধাপসমূহ দিচ্ছে দেওয়া হল:

১. একাদশ শ্রেণিতে অনলাইনে আবেদন করার জন্য প্রথমে www.xiclassadmission.gov.bd এই ওয়েবসাইটে প্রবেশ করতে হবে।

২. উক্ত ওয়েবসাইটে প্রবেশ করার পর আবেদনকারীকে Apply Online অপশনে ক্লিক করতে হবে।

৩. এপ্লাই অনলাইন অপশনে ক্লিক করার পর আবেদনকারীকে তার এসএসসি অথবা সমমান পরীক্ষার রোল নম্বর, বোর্ড, পরীক্ষার পাসের সাল এবং রেজিস্ট্রেশন নাম্বার সঠিকভাবে প্রদান করতে হবে।

৪. পরবর্তীতে একাদশ শ্রেণিতে আবেদনকৃত শিক্ষার্থীকে তার ব্যাক্তিগত মোবাইল নম্বরটি প্রদান করতে হবে।

৫. মোবাইল নম্বর প্রদান করার পর আবেদনকারীকে কলেজ নির্বাচন অর্থাৎ college choice দিতে হবে। একজন শিক্ষার্থী সর্বোচ্চ ১০ টি কলেজ এবং সর্বনিম্ন ৫ টি কলেজ চয়েস দিতে পারবে।

৬. কলেজ চয়েজ দেওয়ার সম্পূর্ণ হলে আবেদনকারীকে আবেদনপত্রের একটি প্রিভিউ দেখানো হবে। পরবর্তীতে সাবমিট বাটনে ক্লিক করে একাদশ শ্রেণিতে ভর্তির আবেদন সম্পন্ন করতে হবে।

অনলাইনে আবেদন সম্পন্ন করার পর প্রার্থীকে ভর্তির আবেদন ফি এসএমএসের মাধ্যমে অথবা যেকোন মোবাইল ব্যাংকিংয়ের মাধ্যমে জমা দিতে হবে। ভর্তি পরীক্ষার ফি জমা না দেওয়া পর্যন্ত একজন শিক্ষার্থী আবেদন অসম্পূর্ণ হিসেবে বিবেচিত হবে।

একাদশ শ্রেণিতে ভর্তি ফি জমাদান‌ অথবা পেমেন্ট এর নিয়মাবলী :

আবেদন ফি : ১৫০ টাকা।

একাদশ শ্রেণিতে ভর্তির আবেদন ফি জমাদানের জন্য আবেদনকারীকে বাংলাদেশের যেকোনো মোবাইল ব্যাংকিং যেমন শিওর ক্যাশ, রকেট,‌ নগদ ও বিকাশের মাধ্যমে জমা দিতে পারবে। এছাড়াও একাদশ শ্রেণীর ভর্তি ফি টেলিটক সিম থেকে প্রদান করা যাবে। অনলাইনে আবেদন করার পরবর্তী ৩০ মিনিটের মধ্যে শিক্ষার্থীকে উপরের উল্লেখিত যেকোন একটি পদ্ধতি ব্যবহার করে ১৫০ টাকা প্রদান করতে হবে।

বিশেষ দ্রষ্টব্য : একাদশ শ্রেণিতে ভর্তিচ্ছুক শিক্ষার্থীর যদি মুক্তিযোদ্ধার কোটা থাকে তাহলে উক্ত কোটার সত্যায়িত ছবি একাদশ শ্রেণিতে ভর্তির আবেদন পত্রের কৌটার অপশনে আপলোড করতে হবে।

1 Comment on একাদশ শ্রেণিতে ভর্তির আবেদন করার নিয়ম ২০২২

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*